logo
Blog single photo

সউদীগামী নতুন-পুরাতন সকল কর্মীই কোয়ারেন্টিন ভর্তুকি পাবে

সউদীগামী নতুন-পুরাতন সকল কর্মীকে হোটেল কোয়ারেন্টিন খরচের সরকারি ভর্তুকি ২৫ হাজার টাকা প্রদান করা হবে। এ ব্যাপারে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সম্মিলিত গণতান্ত্রিক জোট ও সউদীগামী নতুন কর্মীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে গতকাল এই সুবিধায় তাদেরও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই ভর্তুকির টাকা সংশ্লিষ্ট কর্মী বা তার মনোনীত প্রতিনিধির ব্যাংক একাউন্টে শিগগিরই প্রেরণের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

উল্লেখ্য, মহামারি কোভিড-১৯ বিস্তার রোধকল্পে সউদী আরব সরকার জারীকৃত নির্দেশনা অনুযায়ী গত ২০ মে ২০২১ থেকে ৩০ জুন ২০২১ পর্যন্ত যেসব প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মী ছুটি শেষে নিজ খরচে সউদী আরবে বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন পালন করেছে বা করবে, তাদেরকে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে কর্মী প্রতি ২৫ হাজার টাকা করে ভর্তুকি প্রদান করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। বুধবার কাকরাইলস্থ বিএমইটির কনফারেন্স রুমে বায়রার সম্মিলিত গণতান্ত্রিক জোটের নেতৃবৃন্দ ডিজি শহিদুল ইসলামের সাথে এক বৈঠকে মিলিত হন।

নেতৃবৃন্দ সউদীগামী পুরাতন কর্মীর পাশাপাশি নতুন কর্মীদেরও হোটেল কোয়ারেন্টিনের ভর্তুকির ২৫ হাজার টাকা প্রদানের জন্য জোর দাবি জানানো হয়। এসময়ে আটাবের সভাপতি মনছুর আহমেদ কালামের নেতৃত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন, বায়রার সাবেক নেতা আব্দুস সোবহান ভূঁইয়া, কেএম মোবারক উল্লাহ শিমুল, আলহাজ আবুল বাসার, ফোরাব মহাসচিব মহিউদ্দিন, রফিকুল হায়দার, মাহফুজুল রহমান, আশ্রাফ আলী সরদার, মোসলেহ উদ্দিন, মোহাম্মদ হাসান, নাজমুল শাহ আলম।

বৈঠকে নেতৃবৃন্দ বলেন, বিদেশগামী সকল কর্মীদের করোনা টিকা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। জনশক্তি রফতানির খাতকে ধরে রাখতে হলে বিদেশগামী কর্মীদের ভ্যাসকিন দেয়ার বাস্তবমুখী উদ্যোগ নিতে হবে। তারা বলেন, মালয়েশিয়া সরকার ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে করোনার ভ্যাকসিন ব্যতীত কোনো কর্মী তারা নিবে না। বিএমইটির ডিজি ধৈর্য্যের সাথে নেতৃবৃন্দের দাবি দাওয়ার কথা শোনেন এবং এ ব্যাপারে কার্যকরী উদ্যোগ নেয়ার জন্য প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণের প্রতিশ্রুতি দেন। যেসব কর্মী ইতোমধ্যে সউদী আরব চলে গিয়েছে এবং নিজ ব্যয়ে কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন করেছে বা করছে তাদেরকে একই নিয়মে সংশ্লিষ্ট আবেদনপত্র পূরণপূর্বক আগামী ৩০ জুন মধ্যে সউদী আরবস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস রিয়াদ অথবা বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল জেদ্দায় ডাক মারফত প্রেরণ করতে হবে।
Top