logo
Blog single photo

মেরি জান পাকিস্তান’ হলো খালেদা জিয়ার কথা: শেখ হাসিনা

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের ওই অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন তিনি।

নেতৃত্বশূন্য দলকে মানুষ ভোটের জন্য বেছে নেবে না। বিএনপি নেতারা বন্যার্ত মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে মায়াকান্না করছেন বলেও অভিযোগ প্রধানমন্ত্রীর।

হাঁটি হাঁটি পা পা করে প্রতিষ্ঠার সাত দশক পেরিয়ে এ বছর ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবর্ষে পা রাখল মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দেয়া রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। দিনটি উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় গণভবন থেকে অনলাইনে যোগ দিয়ে সভাপতিত্ব করেন দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা।

সভায় তিনি বলেন, একটা সংগঠন গড়ে তোলা, সেই সংগঠনের আদর্শ নিয়ে সুসংগঠিত করা–এটাই কিন্তু তিনি (বঙ্গবন্ধু) সবসময় করেছেন। আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে যদি দেখা যায়, আজ পর্যন্ত এ দেশের মানুষের যতটুকু অর্জন, সবটুকুই আওয়ামী লীগের হাতে। আওয়ামী লীগ যখনই সরকারে এসেছে, এ দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটেছে।

তিনি আরও বলেন, দেশের মানুষের কল্যাণে আওয়ামী লীগ জীবন দিয়ে দিলেও বিএনপি সবসময়ই স্বাধীনতাবিরোধী চেতনায় বিশ্বাস করে এসেছে। তারেক জিয়ার সাম্প্রতিক মন্তব্যেরও জবাব দেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

শেখ হাসিনা বলেন, 'আমি শুনলাম, খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক জিয়া স্লোগান দেয়: ‘পঁচাত্তরের পরাজিত শক্তি’। এর মধ্য দিয়ে এটাই প্রমাণ করেছে, তার বাপ যে পাকিস্তানের দালাল ছিল, তার মা-ও যে পাকিস্তানি দালাল হিসেবেই ছিল, এরাই ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত বা চক্রান্তের সঙ্গে জড়িত। জিয়াউর রহমান-খালেদা জিয়া, তারেক জিয়া সেটা প্রমাণ করে দিয়েছেন পঁচাত্তরের হাতিয়ারকে সমর্থন দিয়ে অর্থাৎ খুনিদের সমর্থন দিয়ে।’

নিজেরা দুর্নীতি করে আওয়ামী লীগের ওপর দোষ চাপানো তাদের অভ্যাস জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, তারেক জিয়াকে দেশে ফিরতে বাধা দেয়া হচ্ছে না।

তিনি বলেন, মিথ্যা কথা বানানো আর মিথ্যা কথা বলার একটা কারখানা যদি থেকে থাকে, সেটা হলো বিএনপি। তারা মিথ্যা কথা বলতে ও বানাতে ভালো পারে। মিথ্যা বলার প্রডাকশনটা তারা ভালোই দেয় এবং বলেও যায়।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, বিএনপির এক নেতা বলেছেন, তারেক জিয়াকে নাকি দেশে আসতে দেয়া হয় না, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা। তখন ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাছে মুচলেকা দিয়েছিল, একবারে লিখিত দলিল; সে আর রাজনীতি করবে না। এ শর্তে কারাগার থেকে মুক্তি নিয়ে সে বিদেশে পাড়ি জমায়। এটা তো বিএনপি নেতাদের ভুলে যাওয়ার কথা নয়। তাকে তো কেউ বিতাড়িত করেনি।

উন্নয়নবিরোধী বিএনপি নেত্রীসহ স্বাধীনতার চেতনায় অবিশ্বাসীদের দেশছাড়া করার যুক্তিও দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির হৃদয়ে থাকে পাকিস্তান। তাদের মনেই আছে পাকিস্তান। দিল মে হ্যায় পিয়ারে পাকিস্তান। সারা দিন ধরে গুনগুন করে ওই গানই গায়। আয় মেরি জান পেয়ারি কি মান, আঁখোকি তারা, আসমান কি চান, মেরি জান পাকিস্তান–এ হলো খালেদা জিয়ার কথা। কাজেই এই যাদের মানসিকতা, তারা বাংলাদেশের কোনো ভালো চাইবে না–এটা খুব স্বাভাবিক।’

এর আগে, দলের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে দলের কেন্দ্রীয় নেতাসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরাও শ্রদ্ধা জানান স্বাধীনতার মহানায়কের প্রতি।
Top